Onushondhan News

মীরসরাই যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে সংঘর্ষের নেপথ্যে একটি মিছিল!

বিশেষ প্রতিনিধি:

মীরসরাই উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের শান্তিপূর্ণ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্টান শেষ পর্যায়ে সংঘর্ষে রুপ নেয়, পন্ডু হয়ে যায় অনুষ্টান। এতে যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী মাইনুল ইসলাম রানা সহ কমপক্ষে ২৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়।

প্রতক্ষ্যদর্শী ও বিভিন্ন নেতা কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্টানকে ঘিরে পদ প্রত্যাশি সব প্রার্থীর কর্মী সংগ্রহ ও ব্যাপক প্রচার প্রচারণা করেছে। এর মধ্যে মীরসরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের সরাসরি ত্বত্তাবধান থাকায় রানা- ইব্রাহিম অনেক নেতাকর্মীর সমাগম করার সুযোগ পেয়েছে। তাদের নেতা কর্মীদের জমায়েত বিশাল থাকলেও সভাস্থলে তাদের অবস্থান ছিলনা। তারা অবস্থান নিয়েছিল মীরসরাই কলেজ মাঠে।

অনুষ্টানের প্রায় শেষ পর্যায়ে রানা ইব্রাহিম বিশাল মিছিল নিয়ে সভাস্থলে আসে । কিন্ত সভা স্থল তখন অন্য প্রার্থীদের নেতাকর্মীতে কানায় কানায় পরিপূর্ণ ছিল। সভাস্থলে মিছিল নিয়ে রানা ইব্রাহিমের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে দিতে মঞ্চের সামনে অবস্থান নেয়ার চেষ্টা করে। সামনে যেতে না পারায় তারা স্লোগান দিয়ে ধাক্কাধাক্কি শুরু করে। মঞ্চ থেকে বার বার স্লোগান না দেয়ার অনুরোধ করা হলেও তাদের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকে। এসময় তাদের ধাক্কায় এক যুবলীগ কর্মী মাটিতে পড়ে গেলে হাতাতির ঘটনা শুরু হয় । এক পর্যায়ে হাতাতাতি থেকে ঘটনা সংঘর্ষে রুপ পায়। সংঘর্ষে ছড়িয়ে পড়ে সভাস্থলে থাকা নেতাকর্মীদের মাঝে। অনেক চেষ্টার পরও সংঘর্ষ থামাতে না পারায় প্রধান অতিথি বক্তব্য ছাড়াই অনুষ্টানের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

বক্ত্যব্যের সত্যতা পাওয়া গেছে বেশ কয়েকটি ভিডিও ও অনুষ্ঠানের ছবি বিশ্লেষণ করে। ভিড়িওতে দেখা গেছে সভাস্থলের পিছনে থাকা সমাগম থেকে অনুষ্ঠানের প্রায় শেষের দিকে হাতাহাতি ও চেয়ার ছুড়াছুড়ির মাধ্যমে সংঘর্ষের সূ্ত্রপাত। অনুষ্ঠানের শেষে যোগ দেয়া মিছিলটির ছবি ও সংঘর্ষের সময়ের ছবি মিলিয়ে দেখা যায় অই মিছিলের প্রথম সারিতে থাকা কয়েকজন ব্যক্তির নেতৃত্বে হামলার সূত্রপাত। হামলার সাথে জড়িত বেশিরভাগ কর্মী রানা-ইব্রাহিম সমর্থিত বলে আয়োজক কমিটির বক্তব্য ও ছবিতে নিশ্চিত হওয়া গেছে। হামলার ছবিতে রানা-ইব্রাহিম সমর্থিত কর্মী মারুফ, মোহাম্মদ আলী, নওফেল, নয়ন, নোমান ও শাকাওয়াত কে দেখা যায়। অনুষ্ঠান পন্ডু হওয়ার পর এদের মধ্যে নোমান ও শাকাওয়াত সহ ১০-১২ জনের একটি সশস্ত্র মহড়ার ছবি ইতিমধ্যে আমাদের হাতে আছে।

বুধবার (১১ নভেম্বর) মীরসরাই পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে এই সংঘর্ষ হয়।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নুরুল মোস্তফা মানিকের সভাপতিত্বে স্থানীয় সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সন্তান আইটি বিশেষজ্ঞ মাহবুবুর রহমান রুহেল এই সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

কয়েকজন সিনিয়র নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করে বলেন, প্রোগ্রাম পন্ডু করার পূর্ব পরিকল্পনা ছিল কোন কুচক্রী মহলের। আর তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তারা প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ না করে কলেজ মাঠে অবস্থান নেয়। সবার বক্তব্যে দেয়া শেষ, শুধুমাত্র প্রধান অতিথি রুহেল ভাইয়ের বক্তব্যে দেয়ার আগে তারা সভাস্থলে মিছিল নিয়ে ঢুকে ধাক্কাধাক্কি শুরু করে। তখনই সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে নেতাকর্মীদের মাঝে। প্রোগ্রামের ভিডিও, ছবি দেখলে তার সুস্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া যাবে কোথায় থেকে, কোন দিকে থেকে ঝামেলা শুরু হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি বলেন, সুন্দর প্রোগ্রাম হচ্ছিল। হঠাৎ করে একটা মিছিল আসার পর চেয়ার ছুড়াছুড়ি শুরু হয়। পরে লাঠি সোঠা নিয়ে ১০-১২ জন ছেলে সভাস্থল এবং রাস্তায় বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত নেতা কর্মীদের মারধর করে। রুহেল ভাই নিজে দাঁড়িয়ে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা দেখেছে। উনি নিজে দাঁড়িয়ে অনুরোধ করলো তাও কুচক্রী মহল থামেনি।

সংঘর্ষ চলাকালে অনুষ্ঠানের অতিথি মাহবুবুর রহমান রুহেল উঠে মাইকে সবাইকে শান্ত হওয়ার বার বার অনুরোধ করে বলেন, শুরু থেকে এত সুন্দর আয়োজন চলছিল। তোমরা এই সুশৃঙ্খল ও সুন্দর আয়জোন নষ্ট করবেনা। তোমরা আমার দিকে তাকাও। তোমরা নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষ বন্ধ করো।

তিনি আরো বলেন, তোমরা যেভাবে একজন অন্য জনের দিকে এত বড় বড় পাথর ছুড়াছুড়ি করছো। যা দেখে মনে হচ্ছে এটা পরিকল্পিত হত্যার উদ্দেশ্য করছো। আমি সব দেখতেছি ষড়যন্ত্রকারী কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।

সংঘর্ষের বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মোশারফ হোসেন মান্না বলেন, মীরসরাই মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পূর্ব ঘোষিত যুবলীগের সমাবেশ সুন্দরভাবে চলছিল। সাবেক ছাত্রলীগ আহবায়ক রানা ও যুগ্ম আহবায়ক ইব্রাহিম মিছিল নিয়ে সমাবেশে ঢুকে পেছন থেকে চেয়ার ছুঁড়ে সামনে আসার চেষ্টা করলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

মিছিল থেকে সংঘর্ষের সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নুরুল মোস্তফা মানিক বলেন, আমাদের প্রোগ্রামের একদম শেষ পর্যায়ে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটবে আমরা আশা করিনি। সুন্দর ও সুশৃঙ্খল ভাবে সবাই বক্তব্য দিয়ে শেষ করেছে। প্রোগ্রামের শেষ পর্যায়ে প্রধান অতিথি রুহেল ভাই বক্তব্য দেয়ার জন্য উঠার আগ মূর্হতেই একটি মিছিল স্লোগান দিতে দিতে সংঘর্ষে জড়ায়। প্রধান অতিথি নিজে সব দেখেছেন। আর ফেইসবুক সহ বিভিন্ন জায়গায় থেকে বেশ কিছু ছবিও এসেছে আমাদের হাতে। তারপরও প্রোগ্রামের ভিডিও ফুটেজ ও ছবি দেখে আমরা দোষীদের বের করার চেষ্টা করছি। যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রোগ্রাম শুরু বা মাঝামাঝিতে মিছিল না এসে পরে আসার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের মাথায় এই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। আমার ধারনা এটা পরিকল্পিত ঘটনা। কারো এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী এমন কাজ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির ভূঁইয়া বলেন, ‘উপজেলা যুবলীগের নতুন কমিটি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। সমাবেশে পদপ্রত্যাশীদের মধ্যে ছোটখাটো কিছু ঘটনা ঘটেছে। রুহেল কাকা স্পটে ছিলেন। আমি আর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিও ছিলাম। পরে এগুলো মিটমাট করে দেয়া হয়েছে।’

মিরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে একটি মিছিল আসার পর তারা স্লোগান দিয়ে মঞ্চের সামনে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্ত পুরো মাঠ তখন পরিপূর্ণ থাকায় তারা যাওয়ার সুযোগ পায়নি। হয়তো তখন ধাক্কাধাক্কি থেকে চেয়ার ছুড়াছুড়ি, এক পর্যায়ে ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। পরবর্তীতে অনুষ্টান পন্ডু হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি। তবে ঘটনাস্থলে থাকা আমাদের সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান এখানেই

তারিখে ক্লিক করে সংবাদ পড়ুন

November 2020
SSMTWTF
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930 

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা

সবচেয়ে বেশি পড়া হয়েছে

আজ

  • শুক্রবার (রাত ১১:৪৭)
  • ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
  • ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেসবুক-ইউটিউবে আমাদের সঙ্গে থাকুন

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

সবচেয়ে বেশি পড়া হয়েছে

language change »